প্রশ্নোত্তরে কৃষি

কৃষিবিদ ড. এম. এ. মান্নান

প্রশ্নঃ আমাদের বাড়ির পাশের জমিতে আগাম কালো বেগুন চাষ করেছি দেখতে খুব সুন্দর কিন্তু ভিতরে পোকা। কি প্রয়োগ/ব্যবহার করলে পোকা থেকে বাঁচা যাবে দয়া করে বলে দিবেন।

ফেরদৌস আরা সুমী

রানীনগর, নওগাঁ

উত্তরঃ বোন সুমী, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। এটি বেগুনের ফল ও কান্ড ছিদ্রকারী পোকা।

  •              এ পোকা কান্ড ও ফল ছিদ্র করে ভিতরে ঢুকে এবং কান্ড ও ফলের ভিতরের অংশ খেয়ে ফেলে ।
  •              অনেক সময় পোকার কীড়া এমনভাবে ভিতরে ঢুকে যে বাহির থেকে বুঝা খুব কঠিন হয়ে যায়। তবে কখনও কখনও বেগুনের গায়ে পোকার মল দেখা যায়।
  •              এ পোকা থেকে বাঁচার উপায় হলোঃ
  •              যে ফলে ইতিমধ্যেই আক্রমণ হয়েছে তাকে আর সারানোর উপায় নাই।
  •              আক্রান্ত কান্ড  ও ফল তুলে নষ্ট করে ফেলতে হবে।
  •              পাতা ও ডগা থেকে খুঁজে খুঁজে ডিম নষ্ট করে ফেলতে হবে।
  •              বিষটোপ ব্যাবহার করে পোকা মারা যায়।
  •              সেক্স ফেরোমন ব্যবহার করে পুরুষ পোকা নষ্ট করে ফেলতে হবে।
  •              জৈব কীটনাশক নিমবিসিডিন প্রতি লিটার পানিতে ৪ মিলি মিশিয়ে ¯েপ্র করে দিতে হবে।
  •              আক্রমণের মাত্রা বেশী হলে প্রতি লিটার পানিতে ২ মিলি রিপকর্ড মিশিয়ে ¯েপ্র করে দিতে হবে।

প্রশ্নঃ কৃষিবার্তা আমার প্রিয় পত্রিকা। কৃষিবার্তার সাথে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনেক অনেক সালাম ও শুভেচ্ছা। ইদানিং আমাদের এলাকায় সাধারণ ইউরিয়ার পরিবর্তে গুটি ইউরিয়ার প্রচলন শুরু হয়েছে। গুটি ইউরিয়ার ব্যবহার কষ্টসাধ্য। সময় বেশী লাগে এবং শ্রমিকও বেশী লাগে। তারপরেও কেন গুটি ইউরিয়া ব্যবহার করতে বলা হয়? বোরো ধানে গুটি ইউরিয়া ব্যবহারের উপকারিতা কি? দয়া করে জানালে উপকৃত হব। গুটি ইউরিয়া কত গ্রাম ওজনের হয়?

রুহুল আমীন,

গ্রামঃ ভেড়ালী পাড়া,

বাঘা, রাজশাহী।

উত্তরঃ ভাই রুহুল আপনাকে ধন্যবাদ। সাধারণ ইউরিয়ার পরিবর্তে গুটি ইউরিয়া ব্যবহার করলে বেশ কিছু সুবিধা পাওয়া যায়।

১. গুটি ইউরিয়া প্রতি মৌসুমে মাত্র এক বার ব্যবহার করতে হয়।

২. গুটি ইউরিয়া ব্যবহার করলে সাধারণ ইউরিয়া হতে প্রায় শতকরা ২৫-৩০ ভাগ কম ব্যবহার করতে হয়।

৩. গুটি ইউরিয়া যেহেতু মাটির নিচে ব্যবহার করতে হয় সেহেতু ক্ষেতে আগাছার প্রকোপ কম হয়।

৪. গুটি ইউরিয়া ব্যবহার করলে জমিতে সাধারণ ইউরিয়া ব্যবহারের চেয়ে শতকরা প্রায় ১৫-২০ ভাগ ফলন বেশি হয়। এসব সুবিধা সমূহের জন্যই সাধারণ ইউরিয়া ব্যবহার না করে গুটি ইউরিয়া ব্যবহার করা হয়। গুটি ইউরিয়া ব্যবহারে যেহেতু সার কম লাগে এবং ফলন বেশি হয় সেজন্য সরকারও গুটি ইউরিয়া ব্যবহারের প্রতি বেশ তাগিদ দিয়েছেন। আপনার প্রশ্নের দ্বিতীয় অংশ হল গুটি ইউরিয়ার ওজন কত?। আসলে আপনি যা বলতে চেয়েছেন তা সম্ভবত, প্রতিটি গুটি ইউরিয়ার সাইজ বা ওজন কত?

আমাদের দেশে সাধারণত ৩টি আকারের গুটি ইউরিয়া পাওয়া যায়।

প্রথমটির প্রতিটি ২.৭ গ্রাম ওজনের, দ্বিতীয় প্রতিটি ১.৮ গ্রাম ওজনের এবং তৃতীয় প্রতিটি ০.৯ গ্রাম ওজনের।

বোরো ধানে ২.৭ গ্রাম ওজনের একটি বা ০.৯ গ্রাম ওজনের ৩টি গুটি প্রতি চারটি গোছার মাঝ খানে ৪ ইঞ্চি গভীরে প্রয়োগ করতে হয়। আউশ বা আমন ধানে ১.৮ গ্রাম ওজনের একটি বা ০.৯ গ্রাম ওজনের ২টি করে প্রয়োগ করতে হয়। রুহুল ভাই আপনি নিজেও গুটি ইউরিয়া ব্যবহার করবেন এবং অন্যদেরকেও গুটি ইউরিয়া ব্যবহারের জন্য উৎসাহিত করবেন।

প্রশ্নঃ ভিজা স্যাঁতস্যাঁতে মাটিতে কি পেয়ারার গাছ লাগানো যাবে। জানালে খুবই উপকৃত হবো। উত্তর দিবেন।

মোঃ হুমায়ুন কবীর বাবু,

গ্রামঃ রামপুর, উপজেলা ঃ ত্রিশাল,

জেলা- মোমেনশাহী

উত্তরঃ ভাই আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।

  •              বাংলাদেশের আবহাওয়ায় পেয়ারা ভাল জন্মে।
  •              বাংলাদেশের মাটি ও আবহাওয়া পেয়ারা চাষের উপযোগী।
  •              যে কোন ধরণের মাটিতেই পেয়ারা চাষ করা যায়।
  •              তবে জলাবদ্ধতা বা মাটিতে মোটেই আর্দ্রতা না থাকা ক্ষতিকর।
  •              ভাল ফলনের জন্য যে মাটিতে বৃষ্টির পানি দাঁড়ায় না, জৈবপদার্থ ও পুষ্টি সমৃদ্ধ, গভীর, পি এইচ ৫-৮, এরূপ মাটি উত্তম।
  •              ভিজা স্যাঁত স্যাঁতে মাটিতে যদি গর্ত করা যায় এবং নিচের মাটি যদি শক্ত ও শুকনো হয় তবে কোন অসুবিধা নাই।
  •              আর যদি নিচের মাটিও কাদা হয় তবে সে মাটিতে না লাগিয়ে মাটি শুকানোর জন্য অপেক্ষা করা ভাল।

————————————–

প্রিয় কৃষিজীবী ভাই ও বোনেরা যেকোন প্রয়োজনে ০১৯১৫৪৭৩৩০৮

অথবা ০১৭২৫৪১৪৩৭৩ নাম্বারে বা কৃষিবার্তা অফিসে যোগাযোগ করবেন। ধন্যবাদ

FacebookTwitterGoogle GmailEmailYahoo MailYahoo MessengerShare