প্রশ্নোত্তরে কৃষি

কৃষিবিদ ড. এম.এ. মান্না

প্রশ্ন ঃ  আমার একটি কাঁঠাল গাছ আছে। গাছটির বয়স ২০ বছর। ৭ বছর যাবৎ গাছটিতে কাঁঠাল ধরে। একটা বা দুটো কাঁঠাল থাকে। বাকী গুলো ঝরে যায়। আমি এর প্রতিকার জানতে চাই।

মোঃ আইয়ুব আলী

বিসিক শিল্প নগরী

গোবিন্দ নগর, ঠাকুরগাঁও

উত্তর ঃ আইয়ুব আলী ভাই, আপনার পত্রের জন্য ধন্যবাদ। কাঁঠাল গাছে ফল না ধরা বা ধরলেও না থাকার অনেক কারণ আছে। তবে কাঁঠাল ফল টিকানোর জন্য আপনি;

  •              মুচি আসার সময় হতে প্রতি ১৫ দিন পর পর কাঁঠাল গাছে হালকা সেচ দিবেন।
  •              কার্যকর পরাগায়নের জন্য সম্ভব হলে হাত দিয়ে পরাগায়নের ব্যবস্থা করবেন।
  •              বর্ষার আগে ও পরে দু’বার সুষম মাত্রায় সার প্রয়োগ করবেন। প্রতি বারে ৫০ কেজি গোবর, ৫০০ গ্রাম ইউরিয়া, ৫০০ গ্রাম টিএসপি, এবং ৫০০ গ্রাম এমপি সার প্রয়োগ করুন।
  •              এছাড়াও গাছটির চার পার্শে¦ ৪০ টি সিলভামিক্স টেবলেট ১০-১৫ ইঞ্চি গভীরে পুঁতে দিবেন।
  •              পোকা মাকড়ের উপদ্রব থেকে বাঁচার জন্য গাছ পরিষ্কার পরিছন্ন রাখবেন।

আশা করছি আপনার কাঁঠাল গাছটিতে ফল ধরবে এবং ফল টিকে থাকবে। ধন্যবাদ।

প্রশ্ন ঃ  কৃষিবার্তার প্রশ্নোত্তর লেখাটি আমার খুবই ভালো লাগে। তাই আপনাদের কাছে আমি জানতে চাই বোরো ধানের কত দিনের চারা লাগাতে হয়। চারার কত দিন বয়সে কি পরিমান সার দিতে হয়। দয়া করে জানাবেন।

এইচ এম রোকনুজ্জামান

গ্রাম ঃ ধলিরবন্দ

মাদারগঞ্জ, জামালপুর।

উত্তর ঃ রোকনুজ্জামান ভাই, আপনার পত্রের জন্য ধন্যবাদ।

  •              ভাল ফলন পেতে হলে উপযুক্ত বয়সের চারা লাগাতে হবে। বোরো ধানের চারার বয়স জাত ভেদে ৩৫-৪৫ দিন হওয়া দরকার।
  •              জমির উর্বরতা ও উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা বিবেচনায় সারের পরিমাণ কম-বেশি হয়। তারপরও একটি স্বাভাবিক পরিমাণ বলছি।
  •              জমি তৈরির সময় শতক প্রতি ২০ কেজি গোবর, ৫০০ গ্রাম টিএসপি, ৭০০ গ্রাম এমওপি, ৩০০ গ্রাম জিপসাম এবং ৫০ গ্রাম জিঙ্কসালফেট সার প্রয়োগ করতে হবে।
  •              চারা লাগানোর ৭ দিন পর গুটি ইউরিয়ার ২.৭ গ্রাম ওজনের একটি বা ০.৯ গ্রাম ওজনের ৩ টি গুটি, চারটি ধানের গোছার মাঝখানে পুতে দিতে হবে।
  •              পোকা মাকড়ের উপদ্রব হলে আমাদেরকে  লিখবেন। অথবা নিকট্স্থ উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তার পরামর্শে উপযুক্ত কীটনাশক বা ছত্রাকনাশক ব্যবহার করুন। আশা করছি আপনার জমিতে ভাল ফলন হবে। ধন্যবাদ।

প্রশ্নঃ   কৃষিবার্তার সংশ্লিষ্ট সবাইকে আমার ছালাম ও শুভেচ্ছা। আমার একটি পানের ক্ষেত আছে। নিয়মিত সেচ ও পরিমিত খৈল ব্যবহার করার পরও ক্ষেতের পান গুলোর রং হলুদ হয়েছে এবং পান ঝরে যাচ্ছে। কি করলে  প্রতিকার পাওয়া যাবে?

মোঃ আরিফুল ইসলাম

গ্রামঃ বড়দেহা স্কুল পাড়া

বড়াইগ্রাম, নাটোর।

উত্তর ঃ ভাই আরিফ, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।

  •              নিয়মিত সেচ ও পরিমিত খৈল ব্যবহারের কথা বলেছেন। কিন্তু খৈল পঁচা না হলে সেটা পানের জন্য ক্ষতি হয়।
  •              কাঁচা খৈল পান গাছ জ্বালিয়ে ফেলে। পান ঝরে পড়ে।
  •              পানের জমিতে হেক্টর প্রতি ৩০-৫০ কুইন্টাল পঁচা গোবর প্রয়োগ করতে হয়    ৩ বারে।
  •              সেই সাথে ১০০ কেজি ইউরিয়া, ৫০ কেজি টিএসপি ও ৫০ কেজি এমপি প্রয়োগ করতে হয়।
  •              উক্ত সার ৩ বারে সারির উভয় পার্শে ১-২ ইঞ্চি গভীরতায় প্রয়োগ করতে হয়।
  •              স ভাই আরিফ, এ নিয়মে সার দিয়েছেন কিনা বলেন নাই। এ নিয়মে সার দেন এবং অন্যান্য পরিচর্যা করুন। আশা করছি আপনার পান পাতাগুলো সবুজ হবে এবং আর ঝরে পড়বেনা।

প্রশ্ন ঃ কৃষিবার্তার মান্নান স্যার আমার ছালাম নিবেন। আশাকরি আল্লাহর রহমতে ভাল আছেন। আমাদের কিছু পেঁপে গাছ আছে। গাছে প্রচুর ফুল ও ফল ধরে। কিন্তু ঝরে পড়ে যায়। এ জন্য কি ব্যবস্থা নিতে পারি।

পারভেজ আহমেদ

গ্রামঃ বাতাকান্দি, তিতাস কুমিল্লা।

উত্তর ঃ পারভেজ ভাই আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।

সাধারণত যে সব কারনে পেঁপের ফুল ও ফল ঝরে যায়, তা হচ্ছেঃ

  •              স যথেষ্ট পরিমাণ খাদ্যোপাদানের অভাব।
  •              স জমিতে যথেষ্ট পরিমাণ আর্দ্রতার অভাব।

তাই, পেঁপের  চারা রোপণের সময় যথাযথ পরিমান সার প্রয়োগ করা প্রয়োজন। গাছ প্রতি তথা প্রতি গর্তে প্রায়

  •              ১৫ কেজি পঁচা গোবর, ৫০০ গ্রাম টিএসপি, ২৫০ গ্রাম জিপসাম, ২৫ গ্রাম বোরাক্স এবং ২০ গ্রাম জিংক-সালফেট প্রয়োগ করতে হয়।
  •              গাছে নতুন পাতা এলে ৪৫ দিন পরপর ৫০ গ্রাম ইউরিয়া এবং ৫০ গ্রাম এমপি সার প্রয়োগ করতে হয়।
  •              গাছে ফুল আসার আগে গাছপ্রতি ২ টি সিলভামিক্স টেবলেট দুই পার্শে¦ ১০-১৫ ইঞ্চি গভীরে পুঁতে দিতে হবে।
  •              গাছে ফুল আসলে ৪৫ দিন পরপর ১০০ গ্রাম ইউরিয়া এবং ১০০ গ্রাম পটাশ সার প্রয়োগ করতে হয়।
  •              সার প্রয়োগের পর প্রয়োজনে হালকা সেচ প্রদান করতে হবে।

পারভেজ ভাই আপনার পেঁপে গাছের ফুল ও ফল ঝরে পড়বেনা এবং পেঁপে নিশ্চয়ই বড় হবে, ইনশাল্লাহ।

FacebookTwitterGoogle GmailEmailYahoo MailYahoo MessengerShare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *