প্রসঙ্গ : কৃষি নিরাপত্তার জন্য বাজেট বৃদ্ধি প্রয়োজন

বাংলাদেশের সামগ্রিক উন্নতি ও অগ্রগতি নির্ভর করে কৃষির উন্নতির উপর। কিন্তু দিন দিন কৃষির নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হচ্ছে। একদিকে জনসংখ্যা বাড়ছে অন্যদিকে এক শতাংশ হারে আবাদি জমি কমছে। পোল্ট্রি খাতে বার্ড ফ্লুর প্রকোপ ও অস্থিরতা বাড়ছেই। মৎস্য খাতও খুব একটা সুবিধা জনক অবস্থায় নেই। কৃষির অনির্বায এখাত গুলোর স্বনির্ভরতা অর্জন করে খাদ্য নিরাপত্তা তথা কৃষির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

কৃষি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হলে প্রয়োজনীয় বাজেট বরাদ্দ দিয়ে তা সঠিক পরিকল্পনা মাফিক বাস্তবায়ন করতে হবে। এখানে উল্লেখ্য যে, কৃষি খাতের উপর দেশের ১৬ কোটি মানুষের খাদ্য ও কর্মসংস্থান নির্ভরশীল,সেখাতে বাজেট বরাদ্দ বড়ই অপ্রতুল যা মোট বাজটের মাত্র ৮ বা ৯ ভাগের বেশি নয়। আগামী জুন মাসে জাতীয় সংসদে মাননীয় অর্থমন্ত্রী জাতীয় বাজেট ঘোষণা করবেন। সে বাজেট  অবশ্যই কৃষি বান্ধব ও কৃষক বান্ধব বাজেট হওয়া প্রয়োজন। কারণ কৃষকের সমৃদ্ধি মানে কৃষির সমৃদ্ধি। কৃষক যাতে কম খরচে উৎপাদন করতে পারে এবং উৎপাদিত পণ্যের  ন্যায্য মূল্য পায় সে ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। চলতি বোরো মৌসুমে অনেক কৃষক বোরো ধান আবাদ করা থেকে বিরত রয়েছেন। কারণ ধানের ন্যায্য মূল্য না পেয়ে তারা হতাশ। আর এ অবস্থা চলতে থাকলে কৃষি নিরাপত্তা তথা খাদ্য নিরাপত্তা ও হুমকির মুখে পড়তে পারে। এজন্য কৃষক যেনে ফসল আবাদে মনোযোগী হয় সে ধরনের কৃষি বাজেট হওয়া প্রয়োজন। পোল্ট্রি শিল্প কৃষির একটি বড় উপখাত। এখাতে রোগ বালাই ও খাবারের দাম দিনদিন বেড়ে চলেছে। এ অস্থিরতা দূর করে বিকাশমান এ শিল্পের দিকেও নজর দিতে হবে।

বৈরি জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাব ও অধিক জনসংখ্যার খাদ্য চাহিদা নিশ্চিত করতে হলে কৃষি গবেষণার বিকল্প নেই। কৃষি গবেষণায় জোর দেওয়ার কথা বলা হলেও বাজেট কম হওয়ায় কৃষি গবেষণায় উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন সম্ভব হয় না। কৃষি গবেষণার সাফল্যের ধারাবাহিকতাকে অবশ্যই গতিশীল করতে কৃষি বিজ্ঞানিদের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। অন্যদিকে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও মহামারী থেকে বিপর্যস্ত কৃষি খাতকে ঘুরে দাড়াঁনোর জন্য পর্যাপ্ত বাজেট বরাদ্দ রাখা দরকার। কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পের সাথে সম্পৃক্তদের স্বল্প সুদে ঋণ প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। কৃষিপণ্য রপ্তানি করে দেশ যাতে অধিক বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে পারে সেজন্য বাজেটে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ রাখা উচিত। কৃষির সামগ্রিক উন্নয়নের লক্ষ্যে স্বল্প, মধ্যম ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে বাজেট বরাদ্দ দেয়া দরকার। দেশে ক্রমবর্ধমানশীল জনগোষ্ঠির পুষ্টির চাহিদা পূরণসহ খাদ্য নিরাপত্তা জোরদার ও লাগসই প্রযুক্তি উদ্ভাবন করার লক্ষ্যে আরো বিশেষ দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন। এ প্রেক্ষিতে বর্তমান সরকার সদয় দৃষ্টি রাখবেন বলে আমরা মনে করি।

২.পহেলা মে আর্ন্তজাতিক শ্রমিক দিবস। কৃষিবার্তা পরিবারের পক্ষ থেকে আমাদের সকল পাঠক,লেখক,বিজ্ঞাপন দাতা ও শুভানুধ্যায়িদের প্রতি রইল আন্তরিক শুভেচ্ছা। দেশের সকল কৃষি শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার অঙ্গীকার প্রতিষ্ঠা পাক তথা শ্রমিক হিসাবে মূল্যায়িত হোক আজকের দিনে এটাই হোক আমাদের দৃঢ়। সম্প্রতি সাভারে ভবন ধসে অনেক শ্রমজীবী মানুষের জীবনাবসান হয়েছে। এটা কোন ভাবেই কাম্য নয়, এভাবে আর যেনো কোন দূর্ঘটনায় শ্রমজীবী মানুষের হতাহতের ঘটনা না ঘটে সেটা রোধে এখনই কর্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

FacebookTwitterGoogle GmailEmailYahoo MailYahoo MessengerShare
, ,

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *