হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে সব্জি ও ফলের চাষ

হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে সব্জি ও ফলের চাষ
মোঃ ফরহাদ হোসেন

হাইড্রোপনিক (Hydroponic) একটি অত্যাধুনিক ফসল উৎপাদন পদ্ধতি। অতি লাভজনক ফসলের ক্ষেত্রে হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে মাটির পরিবর্তে পানিতে গাছের প্রয়াজনীয় খাবার সরবরাহ করে ফসল উৎপাদন করা হয়। উন্নত বিশ্বে বিশেষ করে ইউরোপ, আমেরিকা, জাপান, তাইওয়ান, চীন, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সমূহে বাণিক্যক ভাবে হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে সবজি ও ফল উৎপাদন করা হচ্ছে। বাংলাদেশ একটি জনবহুল দেশ এবং এখানে স্বাভাবিক চাষের জমি অপ্রতুল হওয়ায় বাড়ির আলিনায়, ঘরের ছাদে অথবা নেট হাউজে হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে সবজি ও ফলের চাষ করে একদিকে যেমন বিশাল জনগোষ্ঠীর পুষ্টি চাহিদা মেটানো সম্ভব অন্যদিকে বিদেশে রপ্তানী করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনও সম্ভব। এই পদ্ধতিতে সারা বছরই সব্জি ও ফল ফলানো সম্ভব এবং উৎপাদিত সব্জি ও ফলে কোন কীটনাশক ব্যবহার করা হয়না বিধায় স্বাস্থ্যের জন্য নিরাপদ, সেই সাথে বাজার মূল্যও পাওয়া যায় ভালো।
হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে ফসল উৎপাদনের সবিধা :
* এ পদ্ধতিতে আবাদী জমির প্রয়োজন হয়না বিধায় বাড়ির আঙ্গিনা বা ছাদের মত জায়গাতেই সব্জি ও ফল উৎপাদন করা যায়।
* নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে সারা বছর কিংবা অমৌসুমেও আবাদ করা যায়।
* পদ্ধতিটি মাটি বিহীন চাষ পদ্ধতি হওয়ায় মাটিবাহিত রোগ ও কৃমিজনিত রোগ হয়না।
* কীটপতঙ্গের আক্রমণ কম হয় বিধায় এই পদ্ধতিতে কীটনাশক মুক্ত সবজি উৎপাদন করা সম্ভব।
* এই পদ্ধতিতে ছোট এবং বড় পরিসরে স্বাস্থ্য সম্মত এবং পরিচ্ছন্ন ভাবে ফসল উৎপাদন করা যায়।
* এ পদ্ধতিতে বাড়ির আঙ্গিনা বা ছাদের মত পতিত জায়গাটুকু চাষের আওতায় আনা যায় এবং মহিলা ও শিশুদের অবসর বা অলস সময়কুটকু পরিচর্যার কাজে লাগানো যায়।
* লাভজনক এবং মান সম্পন্ন ফসল উৎপাদন করা যায়।
হাইড্রোপনিক ব্যবহার পদ্ধতিঃ
দুটি উপায়ে হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে চাষাবাদ করা হয়ঃ
১। সঞ্চালন পদ্ধতি (Cirwlating System)
২। সঞ্চালন বিহীন পদ্ধতি (Non Cirwlating System)
সঞ্চালন বিহীন পদ্ধতিঃ
এই পদ্ধতিতে একটি ট্যাংকিতে গাছের অত্যাবশকীয় খাদ্যোপাদান সমূহ সঠিক মাত্রায় মিশিয়ে পাম্পের সাহয্যে ট্রে-তে পুষ্টি দ্রবণ সঞ্চালন করে ফসল উৎপাদন করা হয়। প্রতিদিন ন্যুনতম ৭ থেকে ৮ ঘন্টা পাম্পের সাহয্যে এই সঞ্চালন প্রক্রিয়া চালু রাখা প্রয়োজন।
সঞ্চালন বিহীন পদ্ধতিঃ
এ পদ্ধতিতে প্রথমেই ট্রে-তে গাছের প্রয়োজনীয় খাদ্যাপাদন সমূহ পরিমিত মাত্রায় সরবারাহ করে সরাসরি ফসল উৎপাদন করা হয়। এক্ষত্রে খাদ্যোপাদান মিশ্রিত দ্রবণ ও উহার উপর স্থাপিত কর্কশীটের মাঝে ৫-৭ সেঃ মিঃ জায়গা ফাঁকা রাখতে হবে এবং কর্কশীটের উপরে ৪-৫ টি ছোট ছোট ছিদ্র করে দিতে হবে যাতে বায়ু চলাচল সহজে হয় এবং গাছ
Table- Hydroponic
তার প্রয়োজনীয় অক্সিজেন কর্কশীটের ফাঁকা জায়গা থেকে সংগ্রহ করতে পারে। ফসলের ছেদে সাধারণতঃ ২-৩ তবা এই খাদ্যোপাদান ট্রে-তে যোগ করতে হয়।
হাইড্রোপনিক পদ্ধতিতে উৎপাদন যোগ্য ফসল :
মিশ্রন পদ্ধতিঃ
প্রতমে ক্যালসিয়াম নাইট্রেট এবং EDTA Iron কে পরিমাপ করে ১০ লিটার পানিতে দ্রবীভূত করে দ্রবণকে স্টক দ্রবণ (Stock Solution) “A” নামে নাম করণ করতে হবে। এবং অবশিষ্ট রাসায়িক দ্রব্যগুলোকে পরিমাপ করে এক সাথে ১০ লিটার পানিতে দ্রবীভূত করে Stock Solution “B” নামকরণ করতে হবে।
এবার ১০০০ লিটার পানি একটি ট্যাংকে নিয়ে (Stock Solution) “A” থেকে ১০ লিটার দ্রবণ পানিতে ঢেলে অধাতব দন্ডের সাহায্যে নাড়াচাড়া করে ভালোভাবে মিশাতে হবে। অতঃপর (Stock Solution) “B” থেকে এইভাবে ১০ লিটার দ্রবন ট্যাংকে ঢেলে ভালোভাবে শিাতে হবে।
Hydroponics-in-tight-spaces-02
হাইড্রোপনিক পদ্ধতির কার্যপ্রণালী :
এই পদ্ধতিতে গ্যালভানাইজিং লোহার তৈরী ট্রে টি একটি ষ্ট্যান্ড এর উপর স্থাপন করে প্লাস্টিক পাইপের সাহয্যে ট্যাংকের সাথে যুক্ত করা হয়। এই ট্যাংক থেকে পাম্পের সাহায্যে জলীয় খাদ্য দ্রবন ট্রেতে সঞ্চালন করা হয়। ট্রের উপর কর্কশীটের মাঝে গাছের প্রয়োজনীয় দূরত্ব অনুসারে গর্ত করতে হয়। উপযুক্ত বয়সের চারা স্পঞ্জ সহ ঐ গর্তে স্থাপন করতে হয়। চারা রোপনের পর ট্যাংক থেকে জলীয় দ্রবন পাম্পের সাহয্যে প্রতিদিন ৭-৮ ঘন্টা সঞ্চালিত করে গাছের অক্সিজেন সরবরাহ বৃদ্ধি করা হয়। ট্রেতে সব সময় কমপক্ষে ৬-৮ সেঃ মিঃ পানি রাখতে হবে এবং ১২-১৫ দিন পর জলীয় দ্রবণ ট্রেতে যোগ করতে হবে।
সঞ্চালন বিহীন পদ্ধতি :
এই পদ্ধতিতে ট্রে, প্লাষ্টিকের বালতি ব্যবহার করে ফসল উৎপাদন করা যায়। চারা রোপণের পূর্বে ট্রে অথবা বালতি জলীয় দ্রবণ দ্বারা অমন ভাবে পূর্ণ করতে হবে যাতে কর্কশীট ও জলীয় দ্রবণের মাঝে ৫-৮ সেঃি মিঃ জায়গা ফাাঁকা থাকে। এই পদ্ধতিতে কোন পাম্পের প্রয়োজন হয়না ফলে সহজেই কৃষকগন ব্যবহার করতে পারে।
লেখকঃ মোঃ ফরহাদ হোসেন, উপজেলা এগ্রিকালচার অফিসার, হিজলা. বরিশাল
মোবাইল : ০১৭১২ ৪০৪৩৫৪।

FacebookTwitterGoogle GmailEmailYahoo MailYahoo MessengerShare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *